সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » তারেক রহমান ‘বালের রাজনীতি’ বোঝে: গয়েশ্বর



তারেক রহমান ‘বালের রাজনীতি’ বোঝে: গয়েশ্বর


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
13.11.2021

গয়েশ্বর ও তারেক

নিউজ ডেস্ক : বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের সাথে টানা বৈঠকে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন নিয়ে রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সংলাপকে গুরুত্ব দেবার কথা বলেছিল তারেক রহমান। কিন্তু দলের নেতারা গুরুত্ব দেয়নি। ১১ নভেম্বর (বৃহস্পতিবার) আবার তারেক রহমান রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার অনুরোধ জানিয়ে একটি চিঠি দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। তারেক রহমানের এই নির্দেশ সরাসরি প্রত্যাখ্যান করেছেন গয়েশ্বর চন্দ্র এবং মির্জা আব্বাস।

শুধু তাই নয়, বিরক্তি নিয়ে গয়েশ্বর বলেছেন, তারেক রহমান ‘বালের রাজনীতি’ বোঝে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা যায়, তারেক রহমানের এই সিদ্ধান্তকে কোনোভাবেই মানতে পারছে না মির্জা আব্বাস এবং গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তারা মনে করছেন, রাষ্ট্রপতির সাথে নির্বাচন কমিশন নিয়ে আলোচনা অর্থহীন এবং এটি বিএনপির অবস্থানকে আরো দুর্বল করে তুলবে।

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বাংলা নিউজ ব্যাংককে বলেন, তারেক রহমান ‘বালের রাজনীতি’ বোঝে! লন্ডনের রাজনীতি আর বাংলাদেশের রাজনীতি এক না। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে আন্দোলন করবে বলেছে বছরের পর বছর। এখন আবার বলছে আলাপ-আলোচনা, সংলাপ। এগুলা কী ফাজলামি! নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের দাবিতে অনড় থাকতে হবে না হয় রাজনীতি ছেড়ে ঘরে বসে থাকতে হবে। আলাপ-আলোচনা করে কোনো লাভ নেই। সংলাপ মানেই সরকারের ফাঁদে পা দেওয়া।

এদিকে বিএনপির অনেক নেতাই মনে করছেন তারেক রহমানের কথা শোনা উচিত। কিন্তু বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যদের বেশিরভাগই বলছেন, যেহেতু বিএনপি নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া কোনো নির্বাচনে যাবে না বলছে। তাছাড়া এ ধরনের সার্চ কমিটির মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন গঠনকে সমর্থন করে না বিএনপি। তাই এধরনের সংলাপে যাওয়া উচিত না। এতে বিএনপির ক্ষতি হবে এবং কর্মীদের মধ্যে ভুল বার্তা পৌঁছবে।

তারকেপন্থী কয়েকজন নেতা মনে করছেন, দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান রাষ্ট্রপতির সঙ্গে নির্বাচন কমিশন নিয়ে সাক্ষাৎ করার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করেছেন তাই আমাদের রাষ্ট্রপতির সঙ্গে দেখা করার প্রার্থনা জানিয়ে একটি চিঠি দেওয়া উচিত। কিন্তু বিএনপির স্থায়ী কমিটির অধিকাংশ সদস্য এ সিদ্ধান্তকে নাকচ করে দেওয়ায় তারাও এখন পাত্তা পাচ্ছে না।

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি