সোমবার ২৯ নভেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » other important » খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি নিয়েও ফখরুল-রিজভীর দ্বন্দ্ব!



খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি নিয়েও ফখরুল-রিজভীর দ্বন্দ্ব!


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
19.11.2021

নিউজ ডেস্ক: বৃহস্পতিবার সকালে বিএনপির চেয়ারপারসনের মিডিয়া উইং ও নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের দপ্তর বিভাগ থেকে জানানো হয়েছিলো, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে বিকাল সাড়ে তিনটায় সংবাদ সম্মেলন করবেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সংবাদ সম্মেলন হওয়ার কথা ছিল গুলশানে বিএনপির চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে। সময়মত মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সংবাদ সম্মেলন করে কর্মসূচি ঘোষণা করেন। আবার একই সময় নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে একা নিজের কক্ষে বসে একই কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বিষয়টি ফখরুল-রিজভীর প্রকট দ্বন্দ্বের বহিঃপ্রকাশ। কিন্তু খালেদা জিয়ার চিকিৎসার মত জরুরী বিষয়েও বিএনপির এই দুই গুরুত্বপূর্ণ নেতার প্রকাশ্য দ্বন্দ্বে উঠে এসেছে বিএনপির ভেতরের করুণ অবস্থা।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার (১৮ নভেম্বর) বিকাল পৌনে ৪টার দিকে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলের স্থায়ী কমিটি ও কেন্দ্রীয় নেতাদের উপস্থিতিতে সংবাদ সম্মেলন করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবিতে আগামী ২০ নভেম্বর গণঅনশন কর্মসূচি ডেকেছে বিএনপি। স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান, ব্যারিস্টার শাজাহান উমর, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালামসহ দলের আরও নেতারা সংবাদ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। অন্যদিকে প্রায় একইসময়ে বিকালে নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে একা নিজের কক্ষে বসে একই কর্মসূচি ঘোষণা করেন দলের জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

বিষয়টি নিয়ে দলের স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, ‘গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে দলের মহাসচিব ম্যাডামের মুক্তি ও বিদেশে উন্নত চিকিৎসার দাবিতে কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। আমরা স্থায়ী কমিটি ও দলের অন্যান্য নেতারা সেখানে ছিলাম। এর বাইরে একই বিষয়ে কারও কথা বলা তো ঠিক না।’

খন্দকার মোশাররফ সরাসরি উত্তর না দিলেও বিষয়টি নিয়ে সরাসরি উত্তর দিয়েছেন রুহুল কবির রিজভী। তিনি বলেন, ‘এসি রুমে বসে উনারা কর্মসূচি ঘোষণা করেন। কিন্তু ম্যাডামের এই হালের জন্য ওই সুবিধাবাদী নেতারাই দায়ী। আমার মত ঝুঁকি নিয়ে ম্যাডামের জন্য তারা রাজপথে দাঁড়াননি। সুতরাং তাদের সাথে আমি পাশে বসব না, আমার মত করে আলাদা কর্মসূচি চালিয়ে যাব।’

এসময় বিএনপিকে সুবিধাবাদীদের হাত থেকে রক্ষার জন্যই তার একলা পথচলা বলেও মন্তব্য করেন রিজভী।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি