রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১
  • প্রচ্ছদ » Lead 2 » এবার খালেদাকে বিদেশি ডাক্তার দিয়েও চিকিৎসার অনুমতি দিল সরকার



এবার খালেদাকে বিদেশি ডাক্তার দিয়েও চিকিৎসার অনুমতি দিল সরকার


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
20.11.2021

নিউজ ডেস্ক : বার্ধক্যজনিত কারণে অসুস্থ খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ব্যাপারে বেশ তৎপর রয়েছে সরকার। জেল থেকে বের করে নিজ বাড়িতে ও হাসপাতালে চিকিৎসার সুযোগ পেয়েছেন খালেদা জিয়া। সেই সুবিধার তালিকায় নতুন করে যুক্ত হয়েছে বিদেশি ডাক্তার নেয়ার সুযোগও।

শনিবার (২০ নভেম্বর) আইনমন্ত্রী আনিসুল হক জানিয়েছেন, বিএনপি বিদেশ থেকে বড় ডাক্তার এনে খালেদা জিয়ার চিকিৎসা করালে সরকার তাতে বাধা দেবে না।

তিনি আরও বলেন, একজন সাজাপ্রাপ্ত আসামিকে আইনের মাধ্যমে যে সুযোগ-সুবিধা দেয়া প্রয়োজন খালেদা জিয়াকে তা দেওয়া হয়েছে।

এর আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও বলেছিলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা প্রাপ্তির ব্যাপারে সরকারের নজর আছে।

এ ঘটনাকে অত্যন্ত মানবিক বলে মন্তব্য করছেন বিশিষ্টজনরা। তারা বলছেন, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের প্রতি এরূপ মহানুভব ঘটনা বাংলাদেশে পরিলক্ষিত হয় না। এমনকি বেগম জিয়া ক্ষমতায় থাকাকালীন বিরোধীদলের উপর যে আচরণ করেছিলেন, তাও ছিল অত্যন্ত পাশবিক। কিন্তু শেখ হাসিনা তার প্রতি বেশ সহানুভূতি প্রদর্শন করছেন। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে বিরল।

এদিকে সরকার খালেদা জিয়ার চিকিৎসা নিয়ে সোচ্চার থাকলেও উল্টো পথে হাঁটছে বিএনপি। দলের নেতা-কর্মীরা তাদের চেয়ারপার্সনের চিকিৎসা চেয়ে দেশে অস্থিতিশীল পরিবেশ তৈরিতে বেশি মনোযোগী। অনশনের নাম দিয়ে ফটোসেশন আর হাস্যকর পরিবেশ সৃষ্টি করে সময় পার করছে।

দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও খালেদা জিয়ার বড় পুত্র সাজাপ্রাপ্ত হয়ে পালিয়ে আছেন লন্ডনে। সেখান থেকে দল পরিচালনা করলেও তার মায়ের চিকিৎসা নিয়ে নেই কোনো পরিকল্পনা। বরং নেতা-কর্মীদের দিয়ে মায়ের অসুস্থতা নিয়ে রাজনীতি করার পরামর্শ দিচ্ছেন তিনি।

এসব ঘটনা দেখে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বেশ উদ্বিগ্ন। তারা বলছেন, খালেদা জিয়া দুর্নীতি ছাড়া তার সন্তানকে আর কিছুই শেখাননি। তাই এরকম সময়েও ছেলেকে কাছে পাচ্ছেন না। এবং এই ছেলে তার কোনো কাজেও লাগছে না। এরকম নেতা যখন মাকে নিশ্চিন্ত করতে পারে না, তখন জনগণকে কতটা সেবা দেবে সেটা ভাববার বিষয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি