সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২
  • প্রচ্ছদ » Lead 1 » খালেদার চিকিৎসকদের মুখ বন্ধ রেখেছেন বিএনপির হাইকমান্ড



খালেদার চিকিৎসকদের মুখ বন্ধ রেখেছেন বিএনপির হাইকমান্ড


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
27.11.2021

নিউজ ডেস্ক: বিএনপির একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানায় দলের হাইকমান্ডের নির্দেশে চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসা ও শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে কিছুই বলছেন না তার চিকিৎসকরা। তার শারীরিক অবস্থার আপডেট জানাচ্ছেন বিএনপির নেতারা।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, রুহুল কবির রিজভী, খন্দকার মোশাররফ হোসেনসহ অনেক নেতা এখন ডাক্তারের ভুমিকা পালন করছেন। তারা বলছেন, খালেদা জিয়ার জীবন সংকটাপন্ন। বাংলাদেশে তার চিকিৎসা নেই। তাকে বিদেশে নিয়ে উন্নত চিকিৎকসার প্রয়োজন। এভার কেয়ার হাসপাতালের একটি বিশ্বস্ত সূত্র বাংলা নিউজ ব্যাংককে জানিয়েছেন, খালেদা জিয়া সুস্থ-স্বাভাবিক রয়েছেন, গতকাল হিমোগ্লোবিন কমে যাওয়ায় তার অবস্থা খারাপ ছিল, রক্ত দেবার পর তিনি আবার সুস্থ হয়ে উঠেছেন। আর ওনার শারীরিক সমস্যাগুলো বার্ধক্যজনিত। বিদেশে চিকিৎসার জন্য গেলেই যে উনি সুস্থ হয়ে যাবেন বিষয়টা এমন না। যতদিন বেঁচে থাকবেন তাকে প্রোপার কেয়ারে থাকতে হবে।

কিন্তু খালেদা জিয়ার চিকিৎসকরা সাংবাদিকদের সামনেই আসছেন না। তবে মাঝে-মধ্যে বিএনপির চিকিৎসকরা যারা রাজনীতি করেন তারা বারবার তাকে বিদেশ নেবার কথা বলছেন। ড্যাবের এক ডাক্তার নেতা পরিচয় গোপন রাখার শর্তে জানায়, ম্যাডামের চিকিৎসকদের মিডিয়ার সামনে না আসতে করা নির্দেশ দিয়েছেন দলীয় হাইকমান্ড। কারণ শীর্ষ নেতারা মনে করছেন এবার ম্যাডামকে বিদেশ পাঠাতে পারবেন। আর ম্যাডামের অবস্থার উন্নতির বিষয়টি সামনে আসলে এ যাত্রায়ও ভেস্তে যেতে পারে বিএনপির সকল পরিকল্পনা।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, খালেদা জিয়াকে বিএনপি যা করছে তা পুরোটাই রাজনীতি। তারা চাইছে তাকে যে কোনো মূল্যে বিদেশে পাঠিয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে সরকারবিরোধী অপপ্রৃচার চালাতে। তাই অত্যন্ত গোপনীয়তার সাথে দেশে তার চিকিৎসা করছেন। আর বিএনপির নেতারা বলে বেরাচ্ছেন, জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রয়েছেন খালেদা জিয়া। আসলে তাদের মূল উদ্দেশ্য দেশবিরোধী ষড়যন্ত্র আরো বেগবান করা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি