সোমবার ১৭ জানুয়ারী ২০২২
  • প্রচ্ছদ » Lead 4 » বিএনপি সমর্থিত এমপি বাবলুর আয়ের উৎস অবৈধ, দুদকের চিঠি



বিএনপি সমর্থিত এমপি বাবলুর আয়ের উৎস অবৈধ, দুদকের চিঠি


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
16.12.2021

বগুড়া-৭ (শাজাহানপুর-গাবতলী) আসনের স্বতন্ত্র এমপি বিএনপি সমর্থিত রেজাউল করিম বাবলু ওরফে শওকত আলী গোলবাগীর আয়ের উৎস অবৈধ বলে জানিয়েছে দুর্নীতি দুমন কমিশন (দুদক)। সম্পদ বিবরণী দাখিলের নির্দেশ দিয়ে বুধবার তাকে চিঠি পাঠিয়েছে দুদকের সমন্বিত কার্যালয় বগুড়া।

এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন দুদকের সমন্বিত কার্যালয় বগুড়ার সহকারী পরিচালক আমিনুল ইসলাম।

তিনি জানান, এমপি রেজাউল করিম বাবলুর বিরুদ্ধে প্রাথমিক তদন্তে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদের তথ্য পাওয়া গেছে। এ কারণে তার ও তার ওপর নির্ভরশীলদের সম্পদ বিবরণী দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সম্পদ বিবরণী দাখিলের জন্য তিনি ২১ দিন সময় পাবেন।

এমপি বাবলু বলেন, চিঠির বিষয়ে কিছু জানতে হলে দুদককেই বলতে হবে। আর যদি আমার কাছ থেকে জানার প্রয়োজন হয়, তাহলে আমার সঙ্গে দেখা করতে হবে।

এর আগে, গত ৭ মার্চ এমপি রেজাউল করিম বাবলুর সম্পদের বিবরণী চেয়ে চিঠি পাঠানো হয়। ওই চিঠিতে ১৪ মার্চের মধ্যে হাজির হয়ে এমপিকে তার সম্পদ বিবরণী দাখিলের নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। সে নোটিশের পরে ১৪ মার্চ তিনি বগুড়ার দুদক কার্যালয়ে হাজির হয়েছিলেন। তবে সেদিন তিনি কোনো সম্পদ বিবরণী জমা দেননি। তাকে আরো সাতদিনের সময় দেয়া হয়েছিল এবং সেই সময়ের মধ্যে সাংসদ বাবলু সম্পদের প্রাথমিক হিসাব দেন।

ভাগ্যের ফেরে এমপি
রেজাউল করিম বাবলু এমপি হয়েছেন ভাগ্যের ফেরে। বগুড়া-৭ আসনটি ‘জিয়া পরিবারের আসন’ হিসেবে পরিচিত। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের জন্মস্থান গাবতলী ও পাশের উপজেলা শাজাহানপুর নিয়ে এ আসন গঠিত।

১৯৯১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত সব জাতীয় নির্বাচনেই এ আসনে বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। সাজাপ্রাপ্ত আসামি হওয়ায় গত একাদশ জাতীয় নির্বাচনে অংশ নিতে পারেননি তিনি। এখানে বিএনপির মনোনয়ন পান গাবতলীর উপজেলা চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা মোরশেদ মিলটন। কিন্তু তার পদত্যাগপত্র গৃহীত না হওয়ায় মনোনয়নপত্র বাতিল হয়। আসনটি বিএনপি শূন্য হয়ে পড়ে।

এ অবস্থায় ভোটের একদিন আগে স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম বাবলুকে সমর্থন দেয় গাবতলী ও শাজাহানপুর বিএনপি। ট্রাক প্রতীক নিয়ে তিনি এমপি হন। এর দুই মাসের মাথায় বদলে যায় আর্থিক অবস্থাও। আঙুল ফুলে হয়ে ওঠেন কলা গাছ। কেনেন ৩৪ লাখ টাকা দামের গাড়ি।

অথচ নির্বাচনী হলফনামায় বিএনপি সমর্থিত এমপি বাবলু বলেছেন, তার বার্ষিক আয় পাঁচ হাজার টাকা। ভোটে দাঁড়ানোর আগে জমা টাকা ছিল ৩০ হাজার। চলাফেরা করতেন একটি পুরোনো মোটরসাইকেলে। তবে এমপি হওয়ার দুই মাসের মধ্যেই ভাগ্য খুলেছে তার।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে নির্বাচন কমিশনে জমা দেওয়া হলফনামায় তার পেশা দেখানো হয় ব্যবসা ও সাংবাদিকতা। তার এবং তার ওপর নির্ভরশীলদের বার্ষিক আয় ৫ হাজার টাকা। অর্থাৎ সাংসদ হওয়ার আগ পর্যন্ত তার মাসিক আয় ছিল ৪১৭ টাকা।

অস্ত্র হাতে ভাইরাল এমপি বাবলু
দুর্নীতির অভিযোগে সমালোচিত বগুড়া-৭ আসনের এমপি রেজাউল করিম বাবলু ওরফে শওকত আলী গোলবাগীর একটি ছবি গত বছরের অক্টোবরে ফেসবুকে ভাইরাল হয়। ছবিতে দেখা যায়, হাতে অস্ত্র নিয়ে হাসি মুখে একটি চেয়ারে বসে আছেন তিনি। পাশেই টেবিলে পড়ে আছে গুলির ম্যাগাজিন। ছবিটি ভাইরাল হওয়ার পরও সমালোচিত হন বগুড়ার গাবতলী-শাজাহানপুর আসনের বিএনপি সমর্থিত এ এমপি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি