সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২



বিএনপিতে ফের গণপদত্যাগের আশঙ্কা


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
21.12.2021

কয়েক দিন আগে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার অসুস্থতার দোহাই তুলে তাকে বিদেশে পাঠাতে ব্যাপক তোড়জোড় চালায় বিএনপি। খালেদা জিয়াকে বিদেশ না পাঠালে কঠোর আন্দোলনের হুমকি দেয় দলটি। কিন্তু আন্দোলনে ব্যর্থতার কারণে বিএনপিতে ফের গণপদত্যাগের আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে বিদেশে না পাঠানো হলে কঠোর কর্মসূচির হুঁশিয়ারি প্রদান করেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। জনসম্পৃক্ত কোনো ইস্যু না পেলেও খালেদা জিয়ার অসুস্থতাকে কেন্দ্র করে আন্দোলন করতে চেয়েছিলেন নেতারা। তবে আন্দোলন ব্যর্থ হওয়ায় দলীয় হাইকমান্ডকেই দোষারোপ করছেন নেতারা। যার কারণে দল থেকে বেরিয়ে যেতে চাইছেন কেন্দ্রীয় কমিটির ছোট-বড় সহস্রাধিক নেতা।

বিএনপি সূত্র জানায়, দীর্ঘদিন ধরে তারেক রহমানের নেতৃত্ব থেকে বিএনপিকে বের করতে চাচ্ছিলেন দলটির বেশ কয়েকজন সিনিয়র ও জুনিয়র নেতা। বিভিন্ন সময় তারেককে নিজ থেকে দায়িত্ব ছেড়ে দেওয়ার পরামর্শও দেন তারা। এতে তারেকের কোনো সাড়া না পেয়ে অনেকটা হতাশ হয়েই পদত্যাগ করছেন সিনিয়র নেতারা।

এ প্রসঙ্গে পদত্যাগ করা বিএনপির এক ভাইস চেয়ারম্যান বলেন, তারেক রহমানের নেতৃত্ব মেনে নিতে না পারায় পদত্যাগ করেছি। প্রকৃতপক্ষে দলের প্রতি তার (তারেক রহমান) ভালোবাসা নেই। তিনি একবার বলেন- দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে। আবার বলেন- কোনো আন্দোলনের প্রয়োজন নেই। তার প্রতিটি সিদ্ধান্তই দলকে বিপদে ফেলছে। আজ বিএনপির এমন অবস্থার জন্য একমাত্র তারেক রহমানই দায়ী। আর এ কথা তাকে বোঝালেই কেন্দ্রীয় কমিটির অন্যান্যদের ওপর রাগারাগি করতেন তিনি। তার এমন একগুঁয়েমি সহ্য করতে না পেরেই পদত্যাগ করেছি।

তিনি আরো বলেন, ২০২২ সালের শুরুতে দেখবেন অসংখ্য নেতাই পদত্যাগ করেছে। আমরা যারা পদত্যাগ করেছি, তারা অবশ্যই বিএনপিকে ভালোবেসেই পদত্যাগ করেছি। পদত্যাগের সময় বলেছি, তারেক রহমান যদি তার একগুঁয়েমি সিদ্ধান্ত থেকে বেরিয়ে পদত্যাগ করেন, তবে অবশ্যই বিএনপির কল্যাণে আমরা আবার বিএনপিতে যোগ দেবো।

বিএনপির রাজনীতি থেকে নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়া দলটির এক নীতিনির্ধারক বলেন, তারেক রহমান দলে থাকলে বিএনপি করার কোনো মানেই হয় না। ২০০৭ সালে বিএনপির বিপর্যয়ের জন্য যিনি দায়ী তার নেতৃত্বে আর যাই হোক দলকে এগিয়ে নেয়া যাবে না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি