সোমবার ২৪ জানুয়ারী ২০২২



জামায়াত ভেঙে তৈরি হওয়া নতুন দলের নাম চূড়ান্ত হলো


বাংলা নিউজ ব্যাংক :
21.12.2021

নিউজ ডেস্ক : ভেঙে যাচ্ছে জামায়াতে ইসলাম, ইতিমধ্যে জামায়াত থেকে বেরিয়ে এসেছে একটি পক্ষ। এর আগে জামায়াতে ইসলাম ভেঙে এবি পার্টি নামে একটি দল তৈরি হয়েছিলো। মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাসহ দলের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন বিষয়ে ভিন্নমত পোষণ করে জামায়াতে ইসলামী থেকে এবিপার্টির বেরিয়ে আসার কয়েক মাসের মধ্যে নতুন আরো একটি দল রাজনীতিতে আসছে। সংস্কারের আশায় বসে থেকেও মূল দলের কোনো তৎপরতা না দেখে নতুন দল গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে জামায়াতে এই অংশটি। এরইমধ্যে নতুন দলটির ২টি নাম- জনতা পার্টি ও বাংলাদেশ ন্যায়তন্ত্র দল বাংলাদেশ বিবেচনায় রাখা হলেও বাংলাদেশ ন্যায়তন্ত্র দল নামটিকে চূড়ান্ত করা হচ্ছে বলেও জানা গেছে।

সংশ্লিষ্ট দায়িত্বশীল সূত্রগুলো জানিয়েছে, নতুন দলের সংগঠকেরা ‘বাংলাদেশ ন্যায়তন্ত্র দল’ নামটি প্রথম পছন্দে রেখেছেন। আগামী ফেব্রুয়ারি নাগাদ রাজনৈতিক দলের নাম ও নীতিমালা ঘোষণার প্রস্তুতি চলছে। ইতিমধ্যে ২২টি জেলায় নতুন দলের সমন্বয়কারী নিযুক্ত করা হয়েছে। গত অক্টোবরে জামায়াত থেকে বেরিয়ে আসা নেতা-কর্মী ও সমর্থকদের যে অংশটি ‘জন-আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ’ নামের নতুন রাজনৈতিক মঞ্চ গঠন করেছিল, তাদের থেকে বেরিয়ে আসাদের উদ্যোগেই নতুন দল হচ্ছে। তাদের সঙ্গে যুক্ত আছে দীর্ঘদিন ধরে জামায়াতে উপেক্ষিত নেতা-কর্মীদের একটি অংশ। তবে নতুন দলটির মুখ্য নেতৃত্বে কে থাকছেন, তা এখনো স্পষ্ট নয়। যদিও জামায়াত থেকে পদত্যাগী নেতা আবদুর রাজ্জাকের নাম আলোচনায় আছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, জন-আকাঙ্ক্ষা নামের বদলে ‘আমরা বাংলাদেশ’ নামেই আত্মপ্রকাশ করবে দলটি। জন-আকাঙ্ক্ষার নেতাদের লক্ষ্য জামায়াতের সাবেক ও বর্তমান দায়িত্বশীলদের নতুন দলে যুক্ত করা। ইতিমধ্যে নতুন দলের উদ্যোক্তারা রংপুর, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের বিভিন্ন এলাকা সফর করেছেন। জন–আকাঙ্ক্ষার দায়িত্বশীল একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বললে তারা দাবি করেন, জামায়াতের বিভিন্ন পর্যায়ের সাবেক ও বর্তমান দায়িত্বশীলদের অনেকে ভেতরে-ভেতরে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছেন, যারা জামায়াতে দীর্ঘদিন ধরে উপেক্ষিত।

এমন প্রেক্ষাপটে বিপাকে পড়েছে জামায়াতে ইসলামীর মূল দলের নেতারা। জামায়াতের সংস্কারপন্থীদের এমন সিদ্ধান্ত জামায়াতকে কঠিন পরীক্ষায় ফেলে দিচ্ছে বলে মত তাদের। তবে এ নিয়ে এখনই কোনো বক্তব্য দিতে চায় না মূল দলের নেতারা। তারা বলছেন, আমরা আপাতত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণে রেখেছি। সময় হলে এ বিষয়ে কথা বলা যাবে।

প্রসঙ্গত, জামায়াতে ইসলামীর সংস্কার এবং মুক্তিযুদ্ধের সময়ের ভূমিকার জন্য জাতির কাছে ক্ষমা না চাওয়ার প্রশ্নে গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে আবদুর রাজ্জাক দল থেকে পদত্যাগ করেছিলেন। তিনি জামায়াতের জ্যেষ্ঠ সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল ছিলেন। তখন রাজ্জাক নতুন দল না করা এবং সক্রিয় রাজনীতিতে না থাকার কথা বলেছিলেন। যদিও তার শুভাকাঙ্ক্ষী ও সমর্থকদের অনুরোধে তিনি মত পালটেছেন বলে জানা গেছে। পদত্যাগের সময় রাজ্জাকের অবস্থানকে সমর্থন করে জামায়াত থেকে বহিষ্কৃত হয়েছিলেন ছাত্রশিবিরের সাবেক সভাপতি মুজিবুর রহমান। পরে তাকে সমন্বয়ক করে ‘জন-আকাঙ্ক্ষার বাংলাদেশ’ গঠন করা হয়। সংগঠকেরা বলছেন, নতুন দলের নাম ঘোষণার পর জন–আকাঙ্ক্ষা নামটি থাকবে না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি