নোয়াখালীতে অর্থের বিনিময়ে ছাত্রদলের কমিটি, বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ

নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলা ছাত্রদলের নবঘোষিত আহ্বায়ক কমিটি বাতিলের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে উপজেলা ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

মঙ্গলবার (১৮ জানুয়ারি) বিকেলে অর্থের বিনিময়ে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণার অভিযোগ এনে এ কমিটি বাতিলের দাবিতে উপজেলার কবিরহাট বাজারে বিক্ষোভ মিছিল করে ছাত্রদলের একাংশের নেতাকর্মীরা।

সদ্য ঘোষিত আহ্বায়ক কমিটির পদত্যাগকারী যুগ্ম আহ্বায়ক মো. মিজানুর রহমান হারুন অভিযোগ করে বলেন, গত ১৪ জানুয়ারি ২১ সদস্য বিশিষ্ট কবিরহাট উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন করেন জেলা ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। কমিটিতে আহ্বায়ক করা হয় উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের যুগ্ম সম্পাদক মহসিন রিয়াজকে। মো. আকরাম হোসেন নামে এক প্রবাসীকে সদস্য করা হয়েছে। বাশার রানা স্বপন নামে একজনকে ভুয়া সদস্য করা হয়েছে। সৈয়দ রেজাউল করিম সোহান ও জাফর উদ্দিন জুয়েল নামে দু’জন ছাত্রদল নেতার নাম কমিটিতে দুইবার এসেছে।

তিনি অভিযোগে আরো বলেন, বিএনপির কতিপয় নেতা ও জেলা ছাত্রদলের কয়েকজন নেতার যোগসাজশে টাকার বিনিময়ে তৃণমূল ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মতামতকে উপেক্ষা করে এ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই পকেট কমিটির অধীনে রাজনীতি করা সম্ভব নয় বিধায় কমিটির সদস্য সচিব মো. ইয়াছিন ফরহাদসহ ১৫ জন ছাত্রদল নেতা এ পকেট কমিটি ঘোষণার ২৪ ঘণ্টার মধ্যে গত শনিবার সন্ধ্যায় পদত্যাগ করেছেন।

পদত্যাগকৃতদের মধ্যে রয়েছে- উপজেলা ছাত্রদলের ৯ জন আহ্বায়ক, সদস্য সচিব মো. ইয়াছিন ফরহাদ ও ৫ জন সদস্য।

সর্বশেষ বিতর্কিত এ কমিটি বাতিলের দাবিতে ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা মঙ্গলবার বিকেলে সদ্য বিলুপ্ত উপজেলা ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক কামাল উদ্দিন রুবেল, সিনিয়র সহ-সভাপতি মিজানুর রহমান হারুন, যুগ্ম সম্পাদক মিনহাজুল ইসলাম নেহাল ও সাংগঠনিক সম্পাদক ইব্রাহীম ফরহাদের নেতৃত্বে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে।

এ বিষয়ে জানতে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নোয়াখালী জেলা ছাত্রদলের সভাপতি আজগর উদ্দিন দুখুর সঙ্গে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমি ব্যস্ত আছি। পরে এ বিষয়ে কথা বলব।

Leave a Reply

Your email address will not be published.