নিজের পর্ন দেখে নিজেই হতবাক শামা ওবায়েদ!

শামা ওবায়েদ

নিউজ ডেস্ক : সম্প্রতি স্পর্শ কাতর ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর, টক অফ দ্য টাউনে পরিণত হয়েছেন বিএনপি নেত্রী শামা ওবায়েদ। ইতিমধ্যে গুগলে সবচেয়ে বেশি সার্চ করা হয়েছে শামার পর্ন ভিডিও। যা গুগলের ১৫ দিনের হিসেবের সার্চে পর্ন তারকা মিয়া খলিফাকেও হার মানিয়েছে।

এদিকে শামা ওবায়েদ নিজেই তার পর্ন ভিডিও দেখে অবাক হয়েছেন। কে বা কারা ভিডিওটি ছড়িয়েছে সে বিষয় নিয়ে চিন্তা করার আগে তিনি চিন্তা করছেন, পর্ন ভিডিওতে তার পার্টনারের কথা। কারণ কোনোভাবেই তিনি তার পার্টনারকে চিনতে পারছেন না। শামা ওবায়েদের ঘনিষ্ঠ এক সহকারী বলেন, বিএনপিতে নারীদের জীবন অনেক দুর্বিসহ। পদ পেতে সিনিয়র নেতাদের মনোরঞ্জন করার বিষয়টি বিএনপির রাজনীতিতে স্বাভাবিক। পদ পাবার আশায় বাকি পাঁচটি নারী নেত্রীর মতো শামা ওবায়েদও বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন নেতাদের সঙ্গে শুয়ে থাকেন। তাই নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হওয়া শামা ম্যাডামের পার্টনার কে ছিলেন, সে বিষয় তিনি ঠাওর করতে পারছেন না। কারণ ভিডিওতে শামা ওবায়েদকে দেখা গেলেও তার পার্টনারের চেহারা দেখানো হয়নি। তাই নিজের পর্ন ভিডিও দেখে নিজেই হতবাক হয়েছেন শামা।

এ বিষয়ে শামা ওবায়েদের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সেটা বড় বিষয় নয়। কিন্তু ভিডিওতে আমার পার্টনারকে চিনতে না পারার বিষয়টি আমাকে ভাবিয়ে তুলেছে। মূলত আমার জনপ্রিয়তায় ঈর্ষান্বিত হয়ে অসাধুরা এসব অপপ্রচারে নেমেছে। রাজনৈতিক ক্যারিয়ার ধ্বংস করার জন্য কুচক্রীমহল আমার পিছু নিয়েছে। যদি সৎ সাহস থাকে তবে ভিডিওতে ব্যবহৃত পার্টনারকে খুঁজে বের করে দিন।

অনেকে বলছেন এটি নাকি তারেক রহমান। বিষয়টি উড়িয়ে দিতে চাই না। কারণ মনোনয়ন পাবার আশায় ২০১৮ সালে লন্ডন গিয়ে তার সঙ্গে আমি কিছু সময় কাটাই। তবে আমার বিশ্বাস, ভিডিওর ওই লোকটি তারেক রহমান নন। ইশরাক হোসেন কিংবা তার ছোট ভাই ইসফাক হোসেন হলেও হতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.