বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোর পথে প্রধান বাধা মানসিকতা

নিউজ ডেস্ক: একই বৃত্তে ঘুরছে বিএনপির পথচলা। ‌‘ভাঙা তরী ছেঁড়া পাল’ নিয়ে তাই আর অগ্রসর হওয়ার সাধ নেই দলীয় নেতাকর্মীদের। অনাগত ভবিষ্যৎ কল্পনা করে তারা গুটিয়ে নিচ্ছেন নিজেদের। কারণ তারা জেনে গেছেন, একদিকে যেমন চিকিৎসার কথা বলে হাসপাতালে শুয়ে বসে দিন পার খালেদা জিয়ার। কারণ তিনিও জানেন তার মুক্তি অসম্ভব। অন্যদিকে তারেক রহমানের দলীয় স্বৈরাচারী শাসনেরও পতন হবে না। এমতাবস্থায় নিজেদের দলীয় কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ত করা মানেই নিশ্চিত বিপদের সম্মুখীন হওয়া। বিশিষ্টজনদের অভিমত, বিএনপির রাজনীতি কিংবা সাংগঠনিক অবস্থা, কোনটাই সুবিধাজনক অবস্থানে নেই। যে কারণে তৃণমূলসহ জ্যেষ্ঠ নেতারা গা-ছাড়া মনোভাবে দিব্যি ঘুরে বেড়াচ্ছেন।

সাড়ে তিন বছরেরও অধিক সময় ধরে পরীক্ষিত দুর্নীতি মামলায় মুক্ত আকাশের বাইরে বিএনপির দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। কিন্তু এই দীর্ঘ সময়েও দলের দায়িত্বে থাকা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান দল পুনর্গঠনে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছেন। এমনকি খালেদা জিয়ার মুক্তির লক্ষ্যে গড়ে তুলতে পারেননি শক্ত কোন রাজনৈতিক আন্দোলনও। উপরন্তু তিনি লন্ডনে বসে স্কাইপির মাধ্যমে চালিয়ে গেছেন পদ-মনোনয়ন বাণিজ্য। মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে অযোগ্য-অদক্ষ-অজনপ্রিয় ও রাজনৈতিকভাবে অনভিজ্ঞদের দেদারছে দিয়ে গেছেন পদ-মনোনয়ন। এতে দলের দুর্দিনে মাঠে থাকা নেতাকর্মীরা একদিকে যেমন বঞ্চিত হয়েছেন, অন্যদিকে দল হারিয়েছে জনসমর্থন। সৃষ্টি হয়েছে কোন্দল-বিভক্তির। এ নিয়ে পুরো বিএনপিতেই বিরাজ করছে চাপা ক্ষোভ।

তবুও এসবে কর্ণপাত করেননি তারেক রহমান। তিনি তার বিশ্বস্ত সহচর ও দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সঙ্গে যোগসাজশ করে সাম্রাজ্য টিকিয়ে রেখেছেন। তারেক রহমানের একক সিদ্ধান্তের কারণে বিএনপি রাজনীতির মূল ধারার বাইরে ছিটকে পড়েছে বলে অভিমত দিচ্ছেন রাজনীতি সংশ্লিষ্টরা। তারা বলছেন, এ কারণেই ভেঙে পড়েছে তাদের দলের সাংগঠনিক অবস্থা। এ সমস্ত কারণে বিএনপি বাংলাদেশসহ বহির্বিশ্বের কাছে একটি মৃত রাজনৈতিক দল।

এ ব্যাপারে কথা বলতে যোগাযোগ করা হয় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের সঙ্গে। তিনি বলেন, বিএনপির ঘুরে দাঁড়ানোর পথে প্রধান বাধা মানসিকতা। সবার মধ্যে এক ধরনের সংশয় ও সংকট পরিলক্ষিত হচ্ছে। তবে হ্যাঁ, আমরা বিএনপি ছেড়ে কেউ যাব না এ কথা নিশ্চিত। কিন্তু কোথায় যেন সমন্বয়ের অভাব। যা অচিরেই কাটিয়ে উঠতে পারবো বলে বিশ্বাস করি আমরা।

এদিকে বিএনপির শুভচিন্তক ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলছেন পুরনো কথাই। তিনি এই প্রতিবেদককে বলেন, কয়েক হাজার মাইল দূরত্বে থাকা তারেক রহমানের নেতৃত্বে বিএনপির মতো বড় দল ঘুরে দাঁড়াতে পারবে না। তা ছাড়া দলটির সামনে এখন সঠিক কোনো রাজনৈতিক কর্মকৌশল নেই। তারা খুবই সমন্বয়হীনভাবে চলছে। ফলে এসব কাটিয়ে উঠতে না পারলে কঠিন বাস্তবতার মুখোমুখি হতে হবে বিএনপিকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.