আপোষের মাধ্যমেই লন্ডন যেতে চান খালেদা

দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া আপোষের মাধ্যমে মুক্তি নিয়ে বিদেশে চিকিৎসা করানোর ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

বিএনপির রাজনৈতিক দৈন্যদশা, আন্দোলন ভীতি ও ক্ষয়িষ্ণু রাজনৈতিক ভবিষ্যৎ অনুধাবন করেই তিনি আপোষে মুক্তির ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন বলে জানা গেছে।

সম্প্রতি খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে।

তারা জানান, বেগম জিয়া অবসাদগ্রস্ত হয়ে আপোষে মুক্তি নিয়ে বিদেশে চিকিৎসার বিষয়ে অভিমত ব্যক্ত করেছেন। তিনি লন্ডনে তারেক রহমানের বাসায় থেকে উন্নত চিকিৎসা গ্রহণ করার বিষয়ে তিন এমপিকে জানিয়েছেন। আপোষে মুক্তির জন্য যাবতীয় কাগজপত্র তৈরি এবং আবেদন প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিস্তারিত পদক্ষেপ নিতে তিনি দলীয় আইনজীবীদের সমন্বিতভাবে কাজ করারও নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানা গেছে।

খালেদা জিয়ার মুক্তির ইচ্ছার বিষয়ে জানতে চাইলে তার বোন সেলিনা ইসলাম সংবাদমাধ্যমে বলেন, বেগম জিয়া শারীরিকভাবে ভালো নেই। তার সমস্ত শরীরে ব্যথা। আসলে বয়সের কারণে নানা অসুখ-বিসুখ ভর করেছে। তাই তিনি উন্নত চিকিৎসার জন্য আপোষে মুক্তি নিয়ে বিদেশ যাওয়ার ব্যাপারে আমাদের সঙ্গে আলাপ করেছেন। আমরাও তাকে জেদ ধরে বসে না থেকে নমনীয় হওয়ার অনুরোধ করেছি।

তিনি আরো বলেন, দলের বর্তমান ভঙ্গুর অবস্থা, নেতাদের অসহায়ত্ব ও জনসমর্থন হারানোর বিষয়টি মাথায় রেখে খালেদা জিয়া আন্দোলনের স্বপ্ন দেখছেন না। তাই তিনি আলোচনার মাধ্যমে মুক্তি নিয়ে লন্ডনে যেতে চান। সেখানে উন্নত চিকিৎসা নিয়ে পরিবারের সঙ্গে বাকিটা জীবন কাটাতে চান- বেগম জিয়ার কথা-বার্তায় এমনই মনে হয়েছে। সেজন্য তিনি ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য আইনজীবীদের সঙ্গে কথা বলতেও নির্দেশ দিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.