তারেকের নেতৃত্ব মানতে বিএনপি নেতাদের অনাস্থা, ক্ষোভ চরমে

যতই দিন গড়াচ্ছে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের প্রতি ততই অনাস্থা বাড়ছে দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের। এবার বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার ইস্যুকে কেন্দ্র করে এ অনাস্থা আরো তীব্র হচ্ছে।

বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গেছে, রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন খালেদা জিয়ার অসুস্থতার বিষয়ে বিদেশি চিকিৎসকদের পরামর্শ নেয়ার কথা জানিয়েছিলেন দলের বেশকিছু শীর্ষ নেতা। তবে বিষয়টি একেবারেই পাত্তা দেননি তারেক রহমান।

আর এমন মনোভাবের পর খালেদা জিয়ার প্রতি তারেক রহমানের দৃষ্টিভঙ্গি ও আন্তরিকতা নিয়ে আবারো প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপির বেশ কয়েকজন শীর্ষ নেতা। আবার কেউ কেউ তারেক রহমানের গা ছাড়া মনোভাবকে দুষছেন।

কয়েকদিন আগে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বিএনপি চাইলে খালেদা জিয়ার জন্য বিদেশ থেকে চিকিৎসক আনতে পারে। আর সরকারের এমন বক্তব্যের পরও বিএনপি থেকে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। এ ঘটনায় তারেক রহমানের ওপর নাখোশ হয়েছেন বিএনপির একাধিক নেতা।

যদিও পদ হারানো এবং দলে অবাঞ্ছিত হওয়ার ভয়ে কেউই সরাসরিভাবে তারেককে দোষারোপ করতে পারছেন না। আর এসব কারণেই বিএনপির রাজনীতিতে আস্থা হারানো নেতাদের সংখ্যা প্রতিদিনই বাড়ছে।

দেশের স্বনামধন্য একজন রাজনৈতিক বিশ্লেষকের সঙ্গে একান্ত আলাপকালে বিএনপি নেতাদের সঙ্গে তারেক রহমানের অদৃশ্য দূরত্ব এবং বিশ্বাসহীনতার বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে।

এ বিষয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষক ও বুদ্ধিজীবীরা বলেন, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান খন্দকার মাহবুব হোসেন একবার বলেছিলেন, খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলন করতে ব্যর্থ হয়েছে বিএনপি। বর্তমানে খালেদা জিয়াকে চিকিৎসা করাতেও ব্যর্থ হচ্ছে বিএনপি।

এর আগে খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা তৈমুর আলম খন্দকার আক্ষেপ করে বলেছিলেন, বিএনপির রাজনীতি থেকে আর পাওয়ার কিছু নেই। এছাড়া নব্য বিএনপির নেতা হওয়া গোলাম মাওলা রনি একবার অভিযোগ করেছিলেন যে, বিএনপি নেতাদের রাজনীতি বাদ দিয়ে ধর্ম-কর্মে মনোযোগ দিতে হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.