খালেদার প্রোটকল মেনেই চলবে বিএনপি

নিউজ ডেস্ক : দীর্ঘদিন থেকে রাজধানীর এভারকেয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। শুরু থেকেই খালেদা জিয়াকে বিদেশে নিয়ে চিকিৎসার দাবি জানিয়ে আসছিলো দলটি। এবার জানা গেল কয়েক দিনের মধ্যেই বাসায় নেওয়া হতে পারে তাকে।

শুক্রবার (২১ জানুয়ারি) রাতে একটি সূত্রে এ তথ্য জানা গেলেও বিএনপি কিংবা খালেদা জিয়ার চিকিৎসক দলের সদস্যরা কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেন। তারা বলেন, চিকিৎসক বোর্ডের সিদ্ধান্ত পাওয়া গেলে জানানো যাবে।

এরই মাঝে হাসপাতালে এতোদিন নীরব দর্শকের ভূমিকায় থাকলেও সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে ক্রমেই অবতীর্ণ হচ্ছেন ‘চেয়ারপারসনসুলভ’ ভূমিকায়। এ নিয়ে দলের ভেতর শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন।

একপক্ষ বলছে, পরিস্থিতি যেদিকেই যাক খালেদার হাতেই থাকবে নেতৃত্বের চাবি। অপর পক্ষের দাবি, বিগত দিনের আমলনামা পর্যবেক্ষণ করে খালেদা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারেককে নির্জীব রেখে বিএনপিকে এগিয়ে নিতে। অর্থাৎ তিনি না থাকলেও তার প্রোটকল মেনেই চলবে বিএনপির অনাগত দিনের কর্মযজ্ঞ।

বিশ্বস্ত একটি সূত্রের বরাতে জানা গেছে, হাসপাতালের ভেতরেই তিনি দলীয় মহাসচিব মির্জা ফখরুল, পরে রুহুল কবির রিজভী ও গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। আর প্রত্যেকের সঙ্গে দেখা করেই তিনি আলোচনা করেছেন দল পুনর্গঠন ও আগামী দিনের পথচলা নিয়ে। এরপর থেকে নিজ দল বিএনপির পাশাপাশি শরিক দলগুলোর মধ্যেও নানামুখী আলোচনা ছড়িয়ে পড়েছে।

বলা হচ্ছে, খালেদা জিয়া ‘রাজনীতি’তে আপাতত তেমনভাবে সক্রিয় হতে না পারলেও অন্তত দলীয় শীর্ষ পদটি (চেয়ারপারসন) তার হাতেই রাখবেন। শুধু তাই নয়, তিনি যে রাজনীতি থেকে সহসা অবসর নিচ্ছেন না-সেটাও তিনি নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলাপচারিতায় পরোক্ষভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন।

এমতাবস্থায় দলীয় নেতারা মনে করছেন, সংগঠন হিসেবে বিএনপি ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নির্দেশনায় চললেও দলটির অভিভাবক হিসেবে খালেদা জিয়াই থাকছেন। কারো কারো মতে, খালেদা জিয়ার ‘ছায়া’ নেতৃত্ব আমরণ থাকবে। একইসঙ্গে মায়ের ‘হাতের পুতুল’ হয়ে থাকবেন তারেক।

এ প্রসঙ্গে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন ও দলের অভিভাবক হিসেবে খালেদা জিয়া আছেন, থাকবেন। তবে বর্তমান পরিস্থিতি এবং স্বাস্থ্যগত কারণে তিনি সক্রিয় না হলেও তার দিকনির্দেশনায় সুন্দর ও সঠিক লক্ষ্যে এগিয়ে যাচ্ছে বিএনপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.