আ.লীগের কার্যনির্বাহী সভায় সম্মেলনসহ আসছে একাধিক সিদ্ধান্ত

বাংলাদেশ_আওয়ামী_লীগের_পতাকা

নিউজ ডেস্ক: আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের শনিবারের (৭ মে) সভায় দলের জাতীয় সম্মেলনসহ একাধিক সিদ্ধান্ত হতে পারে। বিকেল সাড়ে ৫টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে এই সভা অনুষ্ঠিত হবে।

সাড়ে পাঁচ মাস পর এ সভার মধ্য দিয়ে কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা সবাই দলের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাচ্ছেন। সর্বশেষ গত বছর ১৯ নভেম্বর গণভবনে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সম্প্রতি বলেছেন, ‘চলতি বছরের ২০ ডিসেম্বর এ (বর্তমান) কমিটির মেয়াদ শেষ হবে। আওয়ামী লীগের রীতি অনুযায়ী ডিসেম্বরে নতুন সম্মেলন হবে।’ তাই জাতীয় সম্মেলনকে ঘিরে দলটির এ সভাকে বেশ গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন নেতারা। এ সভায় আসন্ন জাতীয় সম্মেলন ছাড়াও আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের জন্য মাঠ পর্যায়ের প্রস্তুতি, দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীসহ কয়েকটি দিবসের কর্মসূচি ও সমসাময়িক জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক বিষয়ে আলোচনাসহ সাংগঠনিক বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হতে পারে বলে কেন্দ্রীয় নেতারা জানিয়েছেন।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের আজকের সভায় ১২টি এজেন্ডা (আলোচ্যসূচি) রয়েছে। এগুলো হলো-শোক প্রস্তাব পাঠ, ১৭ মে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস, ২৫ মে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের জন্মবার্ষিকী, ৭ জুন ঐতিহাসিক ছয় দফা দিবস, ১১ জুন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার কারামুক্তি দিবস, ২৩ জুন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী, ৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠপুত্র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ কামালের জন্মবার্ষিকী, ৮ আগস্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী, ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস, সমসাময়িক জাতীয় ও আন্তর্জাতিক বিষয়, সাংগঠনিক এবং বিবিধ।

আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা বলেছেন, প্রতিকূল করোনাভাইরাস সফলভাবে মোকাবিলা করে দেশের মানুষ দুই বছর পর মহাসমারোহে পবিত্র ঈদুল ফিতর পালন করলেন। এর ফলে সারা দেশে একটা স্বস্তিদায়ক পরিবেশ ফিরে এসেছে। এই পরিস্থিতিতে আজ আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। সর্বশেষ গত বছর ১৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় ৫০ নেতাকে ডাকা হয়েছিল। বড় পরিসরে এই প্রথম কার্যনির্বাহী সংসদের সভা হচ্ছে। সামনে জাতীয় সংসদ নির্বাচন, দলের আসন্ন জাতীয় সম্মেলন ও প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীসহ নানা কারণে এটি বেশ গুরুত্বপূর্ণ।

সভায় আওয়ামী লীগের জেলা ও উপজেলা কমিটির সম্মেলনের সর্বশেষ অগ্রগতি বিষয়ে প্রতিবেদন উপস্থাপন করবেন দায়িত্বপ্রাপ্ত বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদকেরা। সর্বশেষ ফেব্রুয়ারিতে দলের সভাপতি শেখ হাসিনা এ বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের তাগিদ দিয়েছিলেন। তিনি আজকের সভায় আসন্ন জাতীয় নির্বাচনের জন্য প্রস্তুতির কথা বলবেন।

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক বলেন, আমাদের দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা অতি দ্রুত ওয়ার্ড, ইউনিয়ন, উপজেলা ও জেলা শাখাগুলোর সম্মেলন করার নির্দেশনা দিয়েছেন। সভায় এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে।

আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন বলেন, দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় সাংগঠনিক এবং সমসাময়িক রাজনৈতিক বিষয় নিয়ে আলোচনা হবে। জাতীয় সম্মেলন সামনে তাই সে বিষয়েও আলোচনা হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published.