পদ্মা সেতু নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য : ক্ষমা চাইবেন খালেদা জিয়া

নিউজ ডেস্ক : বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া বলেছিলেন, পদ্মা সেতু বানাতে পারবে না আওয়ামী লীগ সরকার। আর সেতু হলেও কেউ তাতে চড়বে না। বেগম জিয়ার সেই অনুমান ভুল প্রমাণিত হয়েছে। স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন হচ্ছে ২৫ জুন। উদ্বোধনের দিন ঢাকা–মাওয়া দ্রুতগতির মহাসড়কের তিনটি সেতুতে টোল মওকুফ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। এই তিন সেতু হচ্ছে বুড়িগঙ্গা (পোস্তগোলা), ধলেশ্বরী ও আড়িয়াল খাঁ। এ তিন সেতু সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের। এ তিন সেতুতে বর্তমানে একটি বড় বাসকে গড়ে ২০০ টাকা টোল দিতে হয়।

ফলে পদ্মা সেতু নিয়ে খালেদা জিয়ার সেই মন্তব্যে মোটামুটি বিব্রত বিএনপি। জানা গেছে, পদ্মা সেতু নিয়ে করা মন্তব্যের কারণে লজ্জিত বেগম জিয়া। ইতিমধ্যে পদ্মা সেতু দেখে মানসিকভাবে অস্বস্তিতে পড়েছেন। মুখ দেখাতে পারছেন না আত্মীয়-স্বজনদের কাছে। পদ্মা সেতুর বিরোধিতা করায় দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের কাছেও ক্ষমা চাইতে চান বেগম জিয়া।

মূলত পদ্মা সেতু নিয়ে শুরু থেকেই বেগম জিয়া বিরোধিতা করেছিলেন। কটাক্ষ করেছেন, সরকারি উদ্যোগের ব্যঙ্গ-বিদ্রূপ করেন। দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগও তুলেছেন। সরকার এতোবড় কর্মযজ্ঞ সাধন করতে পারবে না বলেও মন্তব্য করেন বিএনপি নেত্রী। কিন্তু সরকারের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় স্বপ্ন আজ বাস্তবতা। ২৫ জুনের উদ্ভোধনের কথায় চরম লজ্জায় পড়েছেন বেগম জিয়া। বেগম জিয়ার গুলশানের বাড়ি ফিরোজার গোপন সূত্র বলছে, বেগম জিয়ার দৃঢ় বিশ্বাস ছিলো, সরকার পদ্মা সেতুর কাজ সম্পন্ন করতে পারবে না। বৈদেশিক ঋণ নিবে, এমনকি সহায়তাও চাইবে। কিন্তু বর্তমান সরকার কারো সহায়তা ছাড়াই নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতুকে পুরোপুরি দৃশ্যমান করেছে। আর তাই সেতুর বিরোধিতা করায় বেগম জিয়া চরম লজ্জিত। তার অনুমান ভুল প্রমাণিত হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে চিন্তা করে মানসিকভাবে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েছেন বিএনপি নেত্রী। আত্মীয়-স্বজনদের সাথে কথা বলাও বন্ধ করে দিয়েছেন।

পদ্মা সেতুর বিরোধিতা করে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের সাথে বেগম জিয়া অন্যায় করেছেন। যেহেতু পদ্মা সেতু আজ দৃশ্যমান তাই এটির আর বিরোধিতা করতে চান না বিএনপি নেত্রী। পদ্মা সেতুর কারণে দক্ষিণাঞ্চলে সরকারি দলের ভোট ব্যাংক আরো শক্তিশালী হবে আর বিএনপির অবস্থান আরো দুর্বল হয়ে পড়বে। তাই সবকিছু বিবেচনা করে যেকোনো সময় বেগম জিয়ার পক্ষে দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্ষমা চাইবে বিএনপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.