বন্যার্তদের পাশে শেখ হাসিনা আর বিএনপি করছে অপপ্রচার

নিউজ ডেস্ক : জননেত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় থাকুক আর না থাকুক সবসময় পাশে দাঁড়িয়েছেন দুর্গত মানুষের। অতীতের মতো এবারও বন্যার্তদের কাছে ছুটে গিয়েছেন। সিলেট, সুনামগঞ্জ, নেত্রকোনাসহ সংলগ্ন এলাকার বন্যা পরিস্থিতি প্রত্যক্ষ করেছেন। নিজে ত্রাণসামগ্রী তুলে দিয়েছেন বন্যার্তদের হাতে। আর এ বিষয়টি নিয়ে অপপ্রচার ছড়াচ্ছে বিএনপি-জামায়াতের মিডিয়া সেল। অথচ তারা বন্যার্তদের সহায়তায় এগিয়ে আসেনি, উল্টো সমালোচনা করছে সরকারের।

বিএনপি নেতারাও মানুষের পাশে না দাঁড়িয়ে বাগাড়ম্বরে ব্যস্ত। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সিলেটের ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতিতে কোথাও দেখা যায়নি বিএনপি নেতাদের। এমনকি বিএনপি থেকে নির্বাচিত সিলেটের মেয়রের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন সিলেটবাসী। বলা হচ্ছে- নেতাকর্মী নিয়ে ফটোসেশন করতে গিয়েছিলেন একবার।

অথচ আওয়ামী লীগ এবং বিভিন্ন স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনসহ অনেক ব্যক্তি নিজ উদ্যোগে ফান্ড কালেক্ট করে বন্যার্তদের পাশে দাঁড়িয়েছেন। ত্রাণ পৌছে দিচ্ছেন বাড়ি বাড়ি গিয়ে।

সাম্প্রতিক বন্যায় দেশের ১১টি জেলায় মানবিক সহায়তা হিসেবে জেলা প্রশাসকদের অনুকূলে ১৭২০ মেট্রিক টন চাল, দুই কোটি ৭৬ লাখ টাকা নগদ সহায়তা ও ৫৮ হাজার শুকনো ও অন্যান্য খাবারের প্যাকেট বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। পরে আরও ১ কোটি টাকা বরাদ্দ বাড়ায় সরকার। এদিকে যারা সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে তাদের পক্ষ থেকে কোনো বরাদ্দ বা ফান্ডের তথ্য পাওয়া যায়নি।

দেশের বিজ্ঞজনরা বলছেন, বিএনপির এখন একমাত্র কাজই হচ্ছে সরকারের সমালোচনা করা। জনগণের জন্য তারা অতীতেও কাজ করেনি ভবিষ্যতেও করবে না। ১৯৯৮ সালের ভয়াবহ বন্যায় ক্ষুধার্ত মানুষের জন্য নিজ হাতে রুটি বানিয়ে দিয়েছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা। অন্যদিকে সেজেগুজে রিকশায় ঘুরেছেন খালেদা জিয়া। পার্থক্যটা এখানেই পরিষ্কার হয়ে যায়। তাদের কাজ অপপ্রচার করা আর জননেত্রী শেখ হাসিনার কাজ দেশের উন্নয়ন করা। জনগণের সেবা করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.