পদ্মা সেতুর মতো প্রধানমন্ত্রীর সিলেট গমন নিয়েও কুচক্রী মহলের ষড়যন্ত্র

নিউজ ডেস্ক : পদ্মা সেতুকে ষড়যন্ত্র শেষ হতে না হতেই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সিলেট গমন নিয়ে ষড়যন্ত্রে জড়িয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা। সম্প্রতি দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলের বন্যা পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখতে সিলেট যান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি মঙ্গলবার (২১ জুন) সকাল ১০টার দিকে হেলিকপ্টার যোগে সিলেট ওসমানী বিমানবন্দরে পৌঁছান। পরে সেখান থেকে সিলেট সার্কিট হাউজে যান।

এরই মধ্যে হেলিকপ্টারে দেশের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করার ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচার হবার পর থেকে এ নিয়ে সমালোচনা শুরু করেছে দেশ বিরোধী চক্র। তারা বলছে, হেলিকপ্টারে করে পর্যবেক্ষণ করার প্রয়োজন ছিলো না। অথচ সমালোচনাকারীরা বুঝতে চাইছেন না, দেশের দুর্গম এলাকা যেখানে পথে হেঁটে যাবার অবস্থা বর্তমানে নেই, সে সব অঞ্চলে হেলিকপ্টার ছাড়া পরিদর্শনের সুযোগ নেই। এছাড়া বন্যায় প্লাবিত পুরো এলাকা কম সময়ে ঘুরে দেখার জন্য হেলিকপ্টারের বিকল্প এ মুহূর্তে নেই।

এ প্রসঙ্গে রাজনৈতিক বিশ্লেষক এ আরাফাত বলেন, সমালোচনাকারীরা উত্তম কাজেও কলঙ্ক মাখতে বাদ রাখে না। অথচ সরকারের প্রদান করা ৬০ লাখ টাকা ছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর নিজস্ব তহবিল থেকে যে লাখ টাকা করে সিলেটের প্রতিটি পাড়ায় পাড়ায় দেয়া হয়েছে, সে বিষয়ে সমালোচকরা কিছু বলছেন না। আমরা এসব দুষ্কৃতিকারীদের চিনি। তারা সর্বদা সরকারের সমালোচনা করে নিজেদের ফায়দা লুটার কাজে নিমিত্ত থাকে। তাদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা এখন সময়ের দাবি।

এর আগে দেশের সুনাম ক্ষুণ্ণ করা আর নিজেদের স্বার্থ হাসিলে স্বাধীনতাবিরোধী অপশক্তির ষড়যন্ত্রে দেশের নিরাপত্তা বাহিনীর ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির মিথ্যা অভিযোগ এনে একটি বানোয়াট প্রতিবেদনের ভিত্তিতে মিথ্যা তথ্য প্রকাশ করেছিলো। সঙ্গে সঙ্গে পদ্ম সেতু নিয়ে ছড়ায় অন্তহীন গুজব। যদিও সকল অপমানের জবাব দিয়ে সগৌরবে দাঁড়িয়ে আছে পদ্মা সেতু। ঠিক একই ভাবে প্রতিটি ষড়যন্ত্রের জবাব উত্তম কাজের মাধ্যমে বাংলাদেশ সরকার দেবে আশা করেন দেশের আপামর জনগণ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.