ইনডেমনিটি: শুধু বাংলাদেশ নয়, এ কলঙ্ক সকল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের

নিউজ ডেস্ক: ৭৫ এর ১৫ আগস্ট বাংলাদেশের স্বাধীনতার স্থপতি, বাঙালির মুক্তির প্রবাদপুরুষ ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যার পর শোকে বিহ্বল যখন পুরো জাতি, তখন নগ্ন উল্লাসে মেতে উঠেছিল ৭১ এর পরাজিত শক্তি। তবে ইতিহাসের বর্বরোচিত এই হত্যাকাণ্ডের জন্য বাঙালি জাতি হিসেবে বাংলার মানুষ শোকাহত হয়, লজ্জিত হয়।

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের মতোই আরেকটি লজ্জার ইতিহাস সামনে এসেছিল ১৯৭৯ সালের জুলাই মাসে। এ মাসেই অনুষ্ঠিত হওয়া সংসদের প্রথম অধিবেশনে জিয়াউর রহমানের নেতৃত্বাধীন সরকার জাতীয় সংসদকে ব্যবহার করে ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্ট থেকে ১৯৭৯ সাল পর্যন্ত অবৈধ সামরিক সরকারের সমস্ত বর্বর, অন্যায্য কাজের বৈধতা আদায় করে নেয় ইনডেমনিটি আইন পাশ করানোর মাধ্যমে।

জাতীয় সংসদকে ব্যবহার করে বিচারের পথ রুদ্ধ করা হয় ৩ নভেম্বর জেল হত্যাকাণ্ডের এবং জিয়াউর রহমানের সামরিক আদালতে বিনা বিচারে সহস্রাধিক সৈনিক হত্যার।

৯ জুলাই অর্থাৎ ১৯৭৯ সালের যে দিনটিতে কুখ্যাত ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ বাংলাদেশের জাতীয় সংসদে পাস হয় সেই দিনটি শুধু আমাদের দেশের ইতিহাসে কলঙ্কজনক নয় বরং সারা বিশ্বের জন্যই ৯ জুলাই পাস হওয়া পঞ্চম সংশোধনী কলঙ্কজনক। কারণ এই গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার সর্বোচ্চ অপব্যবহারের মাধ্যমে পঞ্চম সংশোধনীর দ্বারা বিচার প্রার্থীর বিচার চাওয়ার পথ রুদ্ধ করাকে আইনি বৈধতা দিয়েছিল জাতির সর্বোচ্চ ফোরাম জাতীয় সংসদ। এরকম একটা ঘটনা নিঃসন্দেহে পৃথিবীর সকল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রের জন্য কলঙ্কের।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

২১ আগস্ট: দেশকে নেতৃত্বশূন্য করার সেদিনের মিশনে

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: স্বাধীনতার প্রাক্কালে ১৪ ডিসেম্বর যেভাবে বুদ্ধিজীবী হত্যাকাণ্ড চালানো হয়েছিল, ঠিক একই উদ্দেশ্যে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী জনসভায় চালানো হয়েছিল ভয়াবহ গ্রেনেড হামলা। দেশে বিরোধী মতকে দমন ও নিশ্চিহ্ন করার অংশ হিসেবে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উপর এই হামলা […]

বিস্তারিত

‘শেখ হাসিনা বেঁচে গেছে আমাদের সর্বনাশ হচ্ছে’

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক : ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট। তারেক জিয়ার পরিকল্পিত গ্রেনেড হামলা মঞ্চস্থ হয় বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে। মূল পরিকল্পনা করেছিলেন তারেক জিয়া হাওয়া ভবনে বসে। এই পরিকল্পনার লক্ষ্য ছিল একটাই- শেখ হাসিনাকে হত্যা করা এবং এই হত্যাকাণ্ডের পর এটি আওয়ামী লীগের অভ্যন্তরীণ কোন্দল হিসেবে চালিয়ে দেওয়া। কিন্তু অলৌকিকভাবে বেঁচে […]

বিস্তারিত

জোট নেতাদের প্রশ্ন, নেতৃত্ব দেবে কে?

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: সরকারবিরোধী ‘বৃহত্তর রাজনৈতিক জোট’ গড়তে এরই মধ্যে ছোট-বড় সমমনা ডান-বাম ও ইসলামী ২২টি দলের সঙ্গে প্রাথমিক সংলাপ শেষ করেছে বিএনপি। ‘গণতন্ত্র মঞ্চে’র শরিক পাঁচটি দলের সঙ্গেও সংলাপ করে দলটি। কিন্তু সবারই একই প্রশ্ন নেতৃত্ব দেবে কে? তারেক রহমানের নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধ হতে চায় না কোনো জোট নেতা। […]

বিস্তারিত