ফের সরকারের দ্বারস্থ খালেদার পরিবার, ক্ষুব্ধ তারেক

নিউজ ডেস্ক : দুর্নীতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির মেয়াদ আরও বাড়ানো হবে। রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে বিচার বিভাগীয় কর্মকর্তাদের একটি কোর্সের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ১০ সেপ্টেম্বর আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, দুর্নীতির মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পরিবার দণ্ড স্থগিতের মেয়াদ বাড়ানোর আবেদন করলে সরকার সেটি বিবেচনা করবে এবং দণ্ড স্থগিতের মেয়াদ বাড়াবে।

আইনমন্ত্রীর এমন কথার পর নড়ে চড়ে বসেছে খালেদা জিয়ার বোন সেলিনা ও ভাই শামীম ইস্কান্দার। তারা ইতিমধ্যে খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ বাড়াতে সরকারের কাছে আবেদনের সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করেছেন বলে জানা গেছে। তবে এতে নাখোশ খালেদা জিয়ার পুত্র ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

দায়িত্বশীল সূত্রের তথ্যমতে, জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দণ্ডিত হয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে ছিলেন বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়া। ২০২০ সালের ২৫ মার্চ শর্তসাপেক্ষে ছয় মাসের জন্য দণ্ড স্থগিত করে মুক্তি দেয় সরকার। এরপর থেকে সরকারের অনুকম্পায় বেড়েই চলেছে খালেদা জিয়ার জামিনের মেয়াদ। সর্বশেষ ১০ সেপ্টেম্বর খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয় আইনমন্ত্রীর কথার পর ইতিমধ্যে তার পরিবারের একাংশ বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিনের জন্য সরকারের দ্বারস্থ হয়।

যদিও এ বিষয় বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শায়রুল কবির খানের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছু জানি না। এমনকি ম্যাডামও (খালেদা জিয়া) আমাকে কিছু বলেনি।

সঙ্গে ঘটনার আদ্যোপান্ত জেনে দারুণভাবে চটেছেন লন্ডনে পলাতক ফেরারি আসামি ও বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। লন্ডনের কিংস্টন ভিত্তিক সূত্রের দাবি, পরিবারের পাশাপাশি দলেরও গুরুত্বপূর্ণজন তারেক। কিন্তু তাকে না জানিয়ে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া যে কাজটি করেছেন, তা কোনভাবেই মানতে পারছেন না তারেক। তার ধারণা, দলের অন্যান্য নেতাকর্মীদের মতোও খালেদা সরকারের ইশারায় চলছেন। তাই এমন সিদ্ধান্ত তিনি সাবলীল ভাবেই নিয়েছেন।

রাজনৈতিক বিজ্ঞজনরা বলছেন, ছেলে কিংবা দলের পক্ষ থেকে কোনরূপ সহায়তা না পেয়েই খালেদা জিয়া পূর্বের ন্যায় এবারও সরকারের দ্বারস্থ হয়েছেন। বুঝে গিয়েছেন, দল কিংবা তারেক কখনই তার জন্য কিছু করবে না। করলে আগেই করতো। যেটা সরকার করেছে তার জন্য। মহানুভবতার পরিচয় দিয়ে কারামুক্ত করেছে। তাই সেই নির্ভরতার জায়গা থেকে এবারও খালেদা সরকারের শরণাপন্ন হয়েছেন। যা শুনে ইতোমধ্যে গাত্রদাহ শুরু হয়ে গেছে তারেকের। জ্বলছেন তেলে-বেগুনে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

সমাজসেবার আড়ালে যৌনতেষ্টা মেটাচ্ছেন বহুগামী সোনিয়া

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: সোনিয়া আক্তার স্মৃতি। সমাজসেবার আড়ালে মিটিয়ে নিচ্ছেন নিজের যৌনতেষ্টা। বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ায় তার শয্যাসঙ্গী বেশিরভাগই দলটির নেতারা। তবে যে পুরুষ তাকে তুষ্ট করতে পারে না তার সঙ্গে দ্বিতীয়বার বিছানায় যান না সোনিয়া। তাই ছাত্রদলের সভাপতি রওনক হাসান শ্রাবণের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙ্গে যায় সোনিয়ার। কারণ শ্রাবণ […]

বিস্তারিত

খুনি জিয়ার পাপাচার ও পাকিস্তানপ্রীতি

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে দায়ী জিয়াউর রহমান এক সময় প্রেসিডেন্ট সায়েমকে জোরপূর্বক ক্ষমতা থেকে সরিয়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে। এরপর ক্ষমতায় বসে জিয়াউর রহমান তার আসল চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটায়। বঙ্গবন্ধু হত্যাপরিকল্পনার কথা জানা থাকা সত্ত্বেও বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বাধা দেয়া তো দূরের কথা […]

বিস্তারিত

উত্তপ্ত রাজনীতিতে নিষ্প্রভ নুরের দল

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin ২০২১ সালের ২৬ অক্টোবর বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে নতুন রাজনৈতিক দল ‘গণঅধিকার পরিষদ’ গঠন করেছিলেন ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। গণঅধিকার পরিষদ গঠনের পর রাজনীতিতে নানা চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল। অনেকেই মনে করেছিলেন, এই দল নতুন ধারার সূচনা করবে। কিন্তু এক বছর যেতে না যেতেই প্রায় হারিয়ে গেছে নুরের […]

বিস্তারিত