কেন বিএনপি ব্যর্থ হচ্ছে বারবার?

ডেস্ক রিপোর্ট : বিএনপির নেতারা সকাল-বিকাল আন্দোলনের কথা বলে মুখে খই ফোটালেও বাস্তবে তাদের আন্দোলনে জনগণ যুক্ত হচ্ছেন না। যার প্রমাণ হিসেবে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ১১ দিনের কর্মসূচি দিকে লক্ষ্য করা যায়। যেখানে বিএনপির সাধারণ মানুষের নজর কাড়তে পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। ফলে বলা যায়, একরকম ঘরোয়া দলে পরিণত হয়েছে বিএনপি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যে বিষয় সেটি হল, দেশের তরুণরা বিএনপি থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়েছেন। যার স্বীকারোক্তি পাওয়া যায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ইসলাম আলমগীরের ​মুখে। দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিন দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘আমাদের তরুণ যুবকেরা যারা সবসময় আন্দোলনের কথা বলেন, তারা কোন দিন নিজেরা একটা আন্দোলন শুরু করেছেন?

মির্জা ফখরুলের এই কথার পরে বিএনপির নেতারা এবং কয়েকজন বুদ্ধিজীবীর সাথে কথা হয় বাংলা নিউজ ব্যাংকের। তাদের কাছে জানতে চাওয়া হয়, মির্জা ফখরুলের এমন প্রশ্নের বিষয়ে।

ডাকসুর সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিএনপি নেতা খায়রুল কবির খোকন বলেন, বিএনপি তো ২০১৩ সাল থেকে আন্দোলন করছে। কিন্তু কিছুতেই সাফল্য পাচ্ছে না। মির্জা ফখরুল ঠিকই বলেছেন। তরুণদের আকৃষ্ট করতে হলে আসলে যুগের সাথে তাল মেলাতে হবে। বিএনপির নেতৃত্বকে আধুনিক হতে হবে। প্রযুক্তির এই যুগে আমাদের বেশিরভাগ নেতার কথাই অনেকটা আদিকালের মত শোনায়। আমাদের আধুনিক হওয়ার বিকল্প নেই। ছাত্রদলের কমিটি নিয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন একসময়ের জনপ্রিয় এই ছাত্রনেতা। তিনি বলেন, এরশাদবিরোধী আন্দোলনে কিন্তু ছাত্রদলের ব্যানারে অসংখ্য তরুণ নেমেছিল। এখন নামছে না কেন– প্রশ্ন করলে তিনি বলেন, ছাত্রদের দিয়ে কমিটি করতে হবে। অনেক অছাত্র, দুর্নীতিবাজ দিয়ে ছাত্রদলের কমিটি ভরা। ফলে সাধারণ ছাত্রদের কাছে তারা যেতে পারেন না। ছাত্ররাও সাড়া দেয় না। এসব দুর্বলতা কাটাতে নিয়মিত ছাত্রদের দিয়ে কমিটি করতে হবে।

বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বিএনপির বিরুদ্ধে দুর্নীতি, আগুন সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদের তকমা আছে। ফলে সরকারের এত অন্যায়ের পরেও তরুণরা বিএনপির পক্ষে আসছে না। কারণ সরকার তরুণদের মাইন্ড পড়তে পেরেছে। তারা প্রযুক্তির অনেক উন্নতি করেছে। তরুণদের হাতে হাতে ইন্টারনেট দিয়েছে। তরুণরা এখন নানা আর্থিক কাজে যুক্ত হয়েছে। বিএনপির উচিত হবে, তরুণদের দলে টানতে নতুন প্রযুক্তি শিক্ষায় শিক্ষিত আধুনিক তরুণদের ছাত্রদলের নেতৃত্বে নিয়ে আসা।

ডা. জাফরুল্লাহ বলেন, যতই বলেন না কেন দুর্নীতিবাজ তারেক রহমানকে বিএনপির নেতা হিসেবে তরুণরা মানবে না। খালেদা জিয়ার উচিত হবে তারেকের মেয়ে জাইমাকে দলের নেতৃত্বে নিয়ে আসে। সে আধুনিক, বিদেশে উচ্চশিক্ষিত। দেখতেও সুন্দরী। তাকে দেখে তরুণরা দলে ভিড়বে। এছাড়া তারেকের হাতে বিএনপি থাকলে তরুণরা জীবনেও বিএনপির আন্দোলনে আসবে না। ফলে মির্জা ফখরুলদের আক্ষেপ দূর করতে হলে নতুন নেতৃত্ব আনতে হবে। এছাড়া বিএনপির আন্দোলনে তরুণদের যুক্ত হওয়ার সম্ভাবনা দেখি না আমি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও দেখুন

সমাজসেবার আড়ালে যৌনতেষ্টা মেটাচ্ছেন বহুগামী সোনিয়া

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: সোনিয়া আক্তার স্মৃতি। সমাজসেবার আড়ালে মিটিয়ে নিচ্ছেন নিজের যৌনতেষ্টা। বিএনপির রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ায় তার শয্যাসঙ্গী বেশিরভাগই দলটির নেতারা। তবে যে পুরুষ তাকে তুষ্ট করতে পারে না তার সঙ্গে দ্বিতীয়বার বিছানায় যান না সোনিয়া। তাই ছাত্রদলের সভাপতি রওনক হাসান শ্রাবণের সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙ্গে যায় সোনিয়ার। কারণ শ্রাবণ […]

বিস্তারিত

খুনি জিয়ার পাপাচার ও পাকিস্তানপ্রীতি

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin নিউজ ডেস্ক: পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে দায়ী জিয়াউর রহমান এক সময় প্রেসিডেন্ট সায়েমকে জোরপূর্বক ক্ষমতা থেকে সরিয়ে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখল করে। এরপর ক্ষমতায় বসে জিয়াউর রহমান তার আসল চরিত্রের বহিঃপ্রকাশ ঘটায়। বঙ্গবন্ধু হত্যাপরিকল্পনার কথা জানা থাকা সত্ত্বেও বঙ্গবন্ধুর খুনিদের বাধা দেয়া তো দূরের কথা […]

বিস্তারিত

উত্তপ্ত রাজনীতিতে নিষ্প্রভ নুরের দল

Share this… Facebook 0 Twitter Telegram Linkedin ২০২১ সালের ২৬ অক্টোবর বেশ ঢাকঢোল পিটিয়ে নতুন রাজনৈতিক দল ‘গণঅধিকার পরিষদ’ গঠন করেছিলেন ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নুর। গণঅধিকার পরিষদ গঠনের পর রাজনীতিতে নানা চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছিল। অনেকেই মনে করেছিলেন, এই দল নতুন ধারার সূচনা করবে। কিন্তু এক বছর যেতে না যেতেই প্রায় হারিয়ে গেছে নুরের […]

বিস্তারিত