‘২০২৪ সালেও শেখ হাসিনার বিজয় নিশান উড়িয়ে ঘরে ফিরবো’

টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের) এমপি বলেছেন, আমি আওয়ামী লীগের কোনো নেতা ও কর্মী নই, আওয়ামী লীগের কামলা। ২০১৫ সালের ১৮ অক্টোবর সম্মেলনের মাধ্যমে শেখ হাসিনা আমাকে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক করেছিলেন। তারপরও দলকে আরও সুসংগঠিত করেছি।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দয়ায় ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর দলীয় মনোনয়ন পেয়ে বাসাইল সখীপুর আসন বঙ্গবন্ধুর কন্যাকে উপহার দিয়েছি। আল্লাহর রহমতে আপনাদের দোয়ায় ঠিক ২০২৪ সালেও শেখ হাসিনার বিজয় নিশান উড়িয়ে ঘরে ফিরবো ইনশাল্লাহ।

সম্প্রতি সখিপুর উপজেলা মাঠে আয়োজিত বিশাল গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন। উপজেলা পরিষদ মাঠে সখিপুর সম্মিলিত নাগরিক মঞ্চ এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

জোয়াহেরুল ইসলাম বলেন, যে সংগঠনের মাধ্যমে বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে, সেই দল তথা আওয়ামী লীগের ২০১৮ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইশতেহার ছিলো গ্রাম হবে শহর। সেই লক্ষ্যে বাসাইল-সখীপুর মানুষের বিপুল ভোটে নির্বাচিত হওয়ার পর কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি বলেন, আমি আপনাদের মাঝে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বা এমপি হিসেবে আসি না। শেখ হাসিনার কামলা হিসেবে দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে দুর্নীতি, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও মাদকমুক্ত টাঙ্গাইল গড়েছি। তারই ধারাবাহিকতায় বাসাইল-সখীপুরের সার্বিক উন্নয়ন করে যাচ্ছি। আমি আপনাদের মাঝে আমার বাবা-মাকে খুঁজে পাই। তাই আমি কোনোদিন নেতা বা কর্মী হিসেবে নয়, কামলা হিসেবে আপনাদের পাশে সারাজীবন থাকতে চাই।

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন টাঙ্গাইল-২ (গোপালপুর-ভ‚ঞাপুর) আসনের সংসদ সদস্য তানভীর হাসান ছোট মনির। দ্বিতীয় পর্বে সংগীত পরিবেশন করেন মানিকগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম।

বীর মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহেরুল ইসলাম এমপি দ্বিতীয়বার জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় বিশাল গণসংবর্ধনা অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সখীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি কুতুব উদ্দিন আহমেদ। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সখিপুর পৌরসভার মেয়র ও সখিপুর সম্মিলিত নাগরিক নাগরিক মঞ্চের সভাপতি আবু হানিফ আজাদ। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন সখিপুর সম্মিলিত নাগরিক নাগরিক মঞ্চের সাধারণ সম্পাদক প্রিন্সিপাল আলীম মাহমুদ।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি শামসুল হক, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সুভাষ চন্দ্র সাহা, বীর মুক্তিযোদ্ধা জোয়াহেরুল ইসলাম (ভিপি জোয়াহের) এমপির সহধর্মিণী রওশনারা খান কহিনুর, মেয়ে ডা. জাকিয়া ইসলাম জ্যোতি, সাবেক শ্রম বিষয়ক সম্পাদক সর্দার আজাদ, সাবেক বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক সৈয়দ তারেক মাহমুদ পুলু, জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির মহাসচিব গোলাম কিবরিয়া বড় মনি, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *