জঙ্গি নেতা রণ বীর গ্রেপ্তার, ভেস্তে গেল তারেকের ‘প্ল্যান বি’

নিউজ ডেস্ক : অসাংবিধানিক উপায়ে হঠকারিতার মাধ্যমে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের উদ্দেশ্যে দুটি নীলনকশা করেছিলেন বিএনপির পলাতক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। গত ১০ ডিসেম্বর ব্যর্থ আন্দোলনের মধ্য দিয়ে ভেস্তে গেছে তার প্রথম পরিকল্পনা। এরপরই জামায়াতকে সাথে নিয়ে ‘প্লান বি’ বাস্তবায়নে তোড়জোড় শুরু করে তারেক রহমান।

জামায়াতের সহায়তায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোকে কাজে লাগিয়ে দেশে ভয়াবহ জঙ্গি হামলা, সন্ত্রাসবাদ সৃষ্টি করাই ছিল তারেকের প্ল্যান বি। কিন্তু সেই পরিকল্পনাও ভেস্তে গেলো জঙ্গিনেতা রণ বীরের গ্রেপ্তারের মধ্যদিয়ে।

নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘জামায়াতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়া’র শুরা সদস্য ও সামরিক শাখার প্রধান ‘রণ বীর’ ও তার সহযোগী বোমা বিশেষজ্ঞ বাশারকে গ্রেপ্তার করেছে র‍্যাব। দেশি-বিদেশি অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ কক্সবাজারের কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প সংলগ্ন এলাকা থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

এই দুই জঙ্গির মাধ্যমে নাশকতা সৃষ্টি করে দেশকে অস্থিতিশীল করার পরিকল্পনা ছিলো তারেকের প্ল্যান-বি’তে। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে প্রস্তুতি নিচ্ছিলো এই জঙ্গিরা।

অনুসন্ধানে জানা যায়, উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পে তালিকাভুক্ত শরণার্থী ছাড়াও অবৈধভাবে বসবাস করা রোহিঙ্গার সংখ্যা অনেক। এই রোহিঙ্গাদের নিয়ন্ত্রণ করেন জঙ্গিনেতা মৌলভী শফিক ও নুরুল হক। তাদের নিয়ন্ত্রণে রয়েছে পলাতক সব দুর্ধর্ষ জঙ্গি ও শতাধিক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীসহ পুরো ক্যাম্প।

একইভাবে টেকনাফের নয়াপাড়া ক্যাম্পেও রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী মো. ইসলাম ও জুবাইয়েরের নেতৃত্বে গঠিত হয়েছে ৭০-৮০ সদস্যের ক্যাম্প ম্যানেজমেন্ট কমিটি। তারাই নিয়ন্ত্রণ করে ওই ক্যাম্প। নয়াপাড়ার কাছে লেদা এলাকায় রয়েছে আরো একটি ক্যাম্প। সেখানে অবৈধভাবে বসবাস করছে প্রায় ৩০ হাজার রোহিঙ্গা। একাধিক রোহিঙ্গা সন্ত্রাসী গ্রুপের সাথে মিশে এসব ক্যাম্প নিয়ন্ত্রণ করছে তারা।

এই জঙ্গি, সন্ত্রাসীদের অস্ত্রসহ আর্থিক সহায়তা করছে জামায়াতের শীর্ষ নেতৃত্ব। এর সাথে জড়িত ছিলেন জামায়াত আমীর শফিকুর রহমানের ছেলে রাফাত সাদিক সাইফুল্লাহ। আর জামায়াতের এই শীর্ষ নেতাদের সাথে লন্ডনে একাধিকবার বৈঠক করেছেন তারেক রহমান। সেখান থেকেই সেট করা হয়েছিল রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রমূলক পরিকল্পনা। জামায়াত আমীরের ছেলে রাফাত সাদিক সাইফুল্লাহ তার জবানবন্দীতে এসব তথ্য উঠে এসেছে।

জানা যায়, জঙ্গিনেতা রণ বীরের নেতৃত্বে বিভিন্ন ক্যাম্পে আত্নগোপনে থাকা জঙ্গিরা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্থানে নাশকতাসহ সরকারবিরোধী ষড়যন্ত্র বাস্তবায়নে কাজ করে আসছিলো। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বাকি জঙ্গিদের গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত রাখবে বলে গণমাধ্যমকে জানিয়েছে। এখন জামায়াতুল আনসার ফিল হিন্দাল শারক্বীয়া’র সামরিক শাখার প্রধান ‘রণ বীর’ গ্রেপ্তার হওয়ায় ভেস্তে গেছে তারেক রহমানের প্ল্যান বি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *